‘প্রস্তাবিত বাজেটে বৈষম্য বাড়বে’

গতকাল জাতীয় সংসদে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জন্য দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় যে বাজেট প্রস্তাব করা হয়েছে, সরকারের পক্ষ থেকে তাকে উন্নয়নমুখী বাজেট বলা হলেও সাধারন মানুষ মনে করছেন, এতে বৈষম্য বাড়বে। বাজেটে ব্যাংক আমানতের ক্ষেত্রে আবগারি শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব থাকায় স্বল্প আয়ের অনেকেই ব্যাংকে রাখা টাকা নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। তবে, যেহেতু এটি এখনো পাশ হয়নি সেই ক্ষেত্রে বাজেটে জনগনের সুবিধা হয় সেদিকে নজর দিতে সরকারের প্রতি আহবান সাধারন জনতার।
রাজধানীর হাতির ঝিলে বাসে বসে কথা হয়, সাতক্ষীরার জাহিদ হাসানের সাথে। তিনি ঢাকার একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে ছোট পোস্টে কাজ করেন। বলছিলেন, বাজেট নিয়ে খুব বেশি বুঝেন না তিনি। তবে, অনেক কষ্ট করে যে সঞ্চয় তিনি ব্যাংকে জমিয়েছেন, আবগারী শুল্ক বেড়ে যাওযায় তা নিয়ে দুশ্চিন্তা রয়েছে তার।
প্রায় একই ভাবনার কথা বলছিলেন, মহাখালীর সালেহা বেগমও। মহাখালী কাঁচা বাজারে মাসুদ নামে একজন মুদি দোকানীর কথায় উঠে আসে, তার অসহায়ত্বের কথা। তবে, ভ্যাট নিয়ে সরকার- জনগন মুখোমুখি হবে বলে তিনি মনে করেন।
রাজধানীর সাতরাস্তা মোড়ে কথা হয় রিক্সা চালক আব্দুল হাকিমের সাথে আঠারো বছর ধরে ঢাকা শহর রিক্সা চালিয়ে জীবীকা নীর্বাহ করেন তিনি। তিনি বলছেন, টেলিভিশনে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে দেখেছেন, খুব বেশি না হলেও, যতটুকু বুঝেছেন, তাতে ট্যাক্স ও ভ্যাটের বোঝা যে তাঁর উপর আসবে সেটি আঁচ করতে পারছেন।
আর বনানী এলাকার একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালযের শিক্ষার্থী দীপা বলছিলেন, আমদানী শুল্ক বেড়ে যাওয়ায় কী ধরনের সমস্যা পড়তে হবে তাকে। কারওয়ান বাজার এলাকার মোহাম্মদ ফেরদৌস বলছিলেন, সরকারী কর্মকর্তাদের বেতন বাড়লেও বেসরকারী পর্যায়ে তা হয়নি। কিন্তু ট্যাক্স বা ভ্যাট সবাইকেই সমান ভাবে দিতে হবে। তাই সবাই যাতে সমান সুবিধা ভোগ করতে পারে সে দিকটি বিবেচনায় নিয়ে বাজেট পাশ করার কথা বলেন তিনি।
বাজেট নিয়ে অতশত বুঝেনা সাধারন জনগন। তারা শুধু চান, রাস্তা-ঘাট থেকে শুরু করে নিত্য পন্যের বাজার, সব জায়গায় যেন সহনীয় হয় তাদের জন্য। সেদিকটায় বিবেচনায় নিতে সরকারের প্রতি আহবান তাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Radio Today 89.6fm