সম্মানজনকভাবে বাঁচতে চান সিদ্দিকুর

সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান

সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান

রেডিও টুডে নিউজ:

ভারতের চেন্নাইয়ে পনের দিনের চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরেছেন সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুর রহমান। আজ শুক্রবার বেলা সোয়া তিনটার দিকে মালদ্বীপ এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামেন তিনি। এ সময় সঙ্গে ছিলেন তাঁর বড় ভাই নায়েব আলী।

বিমানবন্দরে সিদ্দিকুরকে সমবেদনা জানাতে চোখে কালো কাপড় বেধেঁ তাই বিকেল থেকে অপেক্ষা করেন আন্দোলনের সহযাত্রীরা। এসময় সহযাত্রীদের চোখে মুখে চির ক্ষোভ আর হতাশা।

এমন সময় বড় ভাই নায়েব আলীর কাঁধে ভর করে চোখে কালো চশমা পরিহিত অবস্থায় বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে আসেন সিদ্দিকুর। কথা বলেন সাংবাদিকদের সাথে। বলেন, ‘তার রক্ত, আর চোখ অবশ্যই সার্থক হবে, যদি সাত কলেজে লেখাপড়ার স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে।

সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, তার সামর্থ্য ছিল না দেশের বাইরে গিয়ে চিকিৎসা করানোর। রাষ্ট্র তার পাশে দাঁড়িয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী তার খোঁজ নিয়েছেন।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে সিদ্দিকুর বলেন, ‘আমি আমার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে চাই, পড়াশোনা শেষ করতে চাই। আমি যেন অবহেলার পাত্র না হই। সম্মানজনক একটা অবস্থান চাই।’

চোখের অবস্থা সম্পর্কে সিদ্দিকুর জানান, ‘ডাক্তার বলেছেন “লিটল হোপ”…একেবারে সামান্য সম্ভাবনা আছে ভালো হওয়ার। তবে আরও ছয় সপ্তাহ গেলে তা বোঝা যাবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে সিদ্দিকুর বলেন, ‘আমি ভুক্তভোগী, তবে কারও প্রতি ক্ষোভ নেই। যদি তারা বাড়াবাড়ি করে থাকে, তবে কর্তৃপক্ষ তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Radio Today 89.6fm