রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান করতে পারব: প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশের জন্যই রোহিঙ্গা সঙ্কট এখন একটি আন্তর্জাতিক ইস্যুতে পরিণত হয়েছে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এ সংকট নিরসনে এখন বিশ্বব্যাপী নানা আলোচনা চলছে, বিশ্ব সম্প্রদায়ের চাপ ও আলোচনার মাধ্যমে আমরা ধীরে ধীরে এর সমাধান করতে পারব। জাতিসংঘ সাধান অধিবেশনে যোগদান শেষে দেশে ফিরে তিনি এসব কথা বলেন।

নির্ধারিত সময় সকাল নয়টা পঁচিশ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি হযরত শহাজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। এর আগেই প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের জেষ্ঠ্য নেতা, মন্ত্রী পরিষদের সদস্য, শিক্ষক-সাংবাদিক-সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব-ব্যাবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ গন্যমান্য ব্যাক্তিরা।

এদের অংশগ্রহনে বিমান বন্দরের ভিভিআইপি লাউঞ্জে আওয়ামীলীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানাতে সংক্ষিপ্ত এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে একে একে প্রধানমন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ, কেন্দ্রীয় চৌদ্দ দল, বিশিষ্ট নাগরিক, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, ক্রীড়া পরিবার, সাংবাদিকনেতৃবৃন্দ ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্বরা।

ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়ে পরে সেখানে দেয়া বক্তব্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তার জীবনে সকল প্রাপ্তি ও অর্জন সম্ভব হয়েছে এদেশের মানুষের ভালবাসা ও অকুন্ঠ সমর্থনের কারনে। এসময় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার প্রেক্ষাপট ও তাদের নিয়ে তার সকারের পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

বিশ্ব সম্প্রদায়ের সমর্থন নিয়ে রোহিঙ্গার সমস্যার সমাধানে আশাবাদারে কথা জানান প্রধানমন্ত্রী।
পদ্মা সেতুর কাজ দৃশ্যমান হওয়ায় এর সাথে সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই সেতুর ঠিকাদার নিয়োগে ক্ষেত্রে দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ এনে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যদের হেয় করার চেষ্টা হয়েছিল।

একদিকে বিপুল সংখ্যক আশ্রয়হীন রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়া এবং নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত পদ্মাসেতুর নির্মান কাজ দৃশ্য হওয়ার মত ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হয়েছে জানিয়ে এ অবস্থান ধরে রাখার জন্য কাজ করতে সবার প্রতি আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Radio Today 89.6fm